Woman Strip Checked in Bengaluru airport: ‘খুবই লজ্জা লাগছিল’, বিমানবন্দরে চেকিংয়ের নামে জনসমক্ষে জামা খোলানো হল তরুণীর

বেঙ্গালুরুর কেম্পেগৌড়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নিরাপত্তা চেকিংয়ের সময় সবার সামনে শার্ট খোলানো হল এক তরুণীকে। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন সেই বিমানযাত্রী। নিরাপত্তা চেকিংকে ‘অগ্নিপরীক্ষা’র সঙ্গে তুলনা করে তিনি দাবি করেন, এই অভিজ্ঞতাটি খুব অপমানজনক ছিল। তিনি প্রশ্ন তোলেন, নিরাপত্তা চেকিংয়ের জন্য কেন কাপড়চোপড় খোলানো এত প্রয়োজনের?

কৃষাণি ঘড়বি নামক সেই ছাত্রী তথা মিউজিশিয়ান টুইটারে নিজের অভিজ্ঞতার বিষয়ে লেখেন, ‘নিরাপত্তা চেকিংয়ের সময় বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরে আমাকে আমার শার্ট খুলে ফেলতে বলা হয়েছিল। শুধুমাত্র একটি ক্যামিসোল পরে আমি নিরাপত্তা চেকপয়েন্টে দাঁড়িয়ে ছিলাম। একজন মহিলা হিসাবে আপনি কখনই চান না এভাবে কারও দৃষ্টি আকর্ষণ করতে। সত্যিই এটা খুব অপমানজনক ছিল। কেন একজন মহিলাকে কাপড় খুলে চেক করতে হবে বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরকে?’

এই টুইটটা ভাইরাল হতেই কৃষাণিকে টুইটেই জবাব দেয় বেঙ্গালুরু বিমানবন্দর। জবাবে বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরের তরফে লেখা হয়, ‘হ্যালো @KrishaniGadhvi, আমরা এই ঘটনার জন্য গভীরভাবে অনুতপ্ত এবং এটি হওয়া উচিত ছিল না। আমরা আমাদের অপারেশন টিমের সামনে বিষয়টি উত্থাপন করেছি। আমাদের নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে সিআইএসএফ (সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স)। তাদেরকেও বিষয়টি জানানো হয়েছে।’ পাশাপাশি টুইটে সেই যাত্রীর ব্যক্তিগত তথ্য চায় বেঙ্গালুরু বিমানবন্দর। কর্তারা সেই অভিযোগকারী তরুণীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে বলে জানানো হয় বিমানবন্দরের তরফে।

এদিকে কৃষাণির টুইট ভাইরাল হওয়ার পর অনেক নেটিজেনই কমেন্ট করেছেন এই নিয়ে। এক টুইটার ব্যবহারকারী এই বিষয়ে লেখেন, ‘একটা বিমানবন্দর এবং এর নিরাপত্তা টিমের পক্ষে এটা খুবই অপ্রীতিকর। নিরাপত্তার বিষয়টি অবশ্যই প্রাধান্য পাবে। কিন্তু এর জন্য লোকেদের অপমান করবেন না। জঘন্য!’ এদিকে ৩ জানুয়ারি কৃষাণি এই টুইটটি করলেও ৪ তারিখ এটি ডিলিট করা হয়। এদিকে বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরের তরফে কৃষাণির টুইট ট্যাগ করে জবাব দেওয়া হয়েছিল। তাই বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরের টুইটটিও এখন আর দেখা যাচ্ছে না।

Read also  Shashi Panja: তাজপুর-দেউচার উদাহরণ দিয়ে রাজ্য সরকারের শিল্পবান্ধব মনোভাব তুলে ধরলেন শশী পাঁজা

Source link