Lost Phone: অফিসারের দামি ফোন পড়েছিল জলাধারে, উদ্ধারে তুলে ফেললেন ২১ লাখ লিটার জল, বিতর্ক তুঙ্গে

অফিসারের দামি ফোন টুপ করে পড়ে গিয়েছিল জলাধারে। আর সেই ফোন খুঁজে পেতে সেই জলাধার থেকে ২১ লাখ লিটার জল ফেলে দিলেন ওই আধিকারিক। ওই আধিকারিকের নাম রাজেশ বিশ্বাস। তিনি ছত্তিশগড়ের কোইলিবেড়া ব্লকের খাদ্য আধিকারিক। তাঁর প্রায় লাখ টাকা দামের ফোন পড়ে গিয়েছিল ওই জলাধারে। আর অফিসারের ফোন বলে কথা। স্থানীয়রা সঙ্গে সঙ্গেই জলে নেমে পড়েছিলেন ফোন উদ্ধারের জন্য। কিন্তু পাথরের জেরে খুঁজে পাওয়া যায়নি। আর সূত্রের খবর সেই ফোন ফিরে পেতে ওই আধিকারিক এরপর জলাধার থেকে জল তুলে ফেলার নির্দেশ দেন। তারপর শুরু হয় জল তোলার কাজ। তিন দিন ধরে জল তোলা হয় বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে সূত্রে খবর।

সূত্রের খবর, সোমবার সন্ধ্যায় শুরু হয় ওই জল তোলার কাজ। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত চলে এই কাজ। জলাধারের বহু মূল্যবান জলকে এভাবে নিজের ফোনের জন্য ফেলে দিলেন আধিকারিক। শেষ পর্যন্ত সেচদফতর এতে হস্তক্ষেপ করে। কারণ ওই রিজার্ভারের জল দিয়ে অন্তত ১৫০০ একর চাষের জমিতে জলসেচ করা যেত। সেই জলই এভাবে ফেলে দেওয়া হল। বলা ভালো নষ্ট করা হল। এতটাই দাপট আধিকারিকের। সূত্রের খবর।

এদিকে ওই আধিকারিকের দাবি, ওই ফোনে সরকারি নানা তথ্য ছিল। সেকারণে জল তোলার দরকার ছিল। তাঁর দাবি এসডিওর কাছ থেকে তিনি মৌখিক অনুমতি নিয়েছিলেন। তিনি নাকি জানিয়েছিলেন, তিন-চার ফুট জল তুললে বড় কিছু হবে না। এতে বরং সুবিধাই হবে চাষিদের।

আধিকারিকের দাবি, স্থানীয়দের সহায়তায় তিনি এই কাজ করেছেন ।আর ফোনটাও ফিরে পেয়েছেন। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে একে প্রচন্ড গরম। খাল বিল শুকিয়ে যাচ্ছে। জল সংকট এলাকায়। সেই পরিস্থিতিতে এভাবে জল ফেলে দেওয়াটা কতটা যুক্তিসংগত তা নিয়ে প্রশ্নটা থেকেই গিয়েছে। এতজন কৃষকের জমিকে সংকটের মধ্যে ফেলে দিয়ে তিনি ফোন বাঁচানোর জন্য বহুমূল্য জলকে এভাবে নষ্ট করে ফেললেন তা নিয়ে প্রশ্নটা থেকেই গিয়েছে।

Read also  আর্থিক মন্দায় ডুবে পাকিস্তান! পেট চালাতে ঠকানো হচ্ছে ভারতীয়দের: রিপোর্ট

 

Source link