Fire: কারখানায় ভয়াবহ আগুন, বিরাট বিস্ফোরণ, মৃত ১, উদ্ধারে বায়ুসেনার হেলিকপ্টার

শর্মিষ্ঠা কর

রবিবার বছরের প্রথম দিনে মহারাষ্ট্রের নাসিকে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। পুড়ে খাক হয়ে গেল কারখানা। বহু দূর থেকে দেখা যায় আগুনের লেলিহান শিখা। কালো ধোঁয়ার কুন্ডুলি। তার জেরে প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে ১জনের মৃত্যু হয়েছে। ১৯জন জখম হয়েছেন। তার মধ্যে চারজনের পরিস্থিতি সংকটজনক। এদিকে দুজন ওই আগুনের ফাঁদের মধ্যে আটকে পড়েছিলেন বলে খবর। দমকলের একের পর এক ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। উদ্ধারকাজে বায়ুসেনার হেলিকপ্টারকে কাজে লাগানো হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, স্থানীয় বাসিন্দারা একটি বিরাট বিস্ফোরনের আওয়াজ পেয়েছিলেন। এরপরই দেখা যায় একেবারে আগুনের গোলা আর ধোঁয়া উপর দিকে উঠে যাচ্ছে। সোশ্য়াল মিডিয়ায় সেই সংক্রান্ত একটি ভিডিয়ো সামনে এসেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে কালো ধোঁয়ার কুন্ডুলি আকাশের দিকে উঠছে। একেবারে শিউরে ওঠার মতো পরিস্থিতি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুপুর সাড়ে ১১টা নাগাদ জিন্দাল গ্রুপের পলিথিন তৈরির কারখানায় আচমকা আগুন ধরে যায়। নাসিকের ইগাতপুরী তেহশিলে এই কারখানাটি রয়েছে।কারখানায় একটি কেমিক্যাল প্লান্টের মধ্যে একটি বয়লারের মধ্য়ে প্রথমে আগুন লাগে। এরপর সেই বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনতে পান বাসিন্দারা। এরপরই দাউ দাউ করে আগুন ছড়িয়ে পড়তে থাকে।

দমকলের একের পর এক ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে আসে। আগুন নেভানোর কাজে ঝাঁপিয়ে পড়েন দমকলকর্মীরা। এদিকে আগুনের জেরে এলাকায় ব্যাপক শোরগোল পড়ে যায় এলাকায়। কয়েকজন কারখানার মধ্যে আটকে পড়েন বলে খবর। চরম আতঙ্ক ছড়ায় এলাকায়। এদিকে কারখানার মধ্য়ে এক মহিলা অগ্নিদগ্ধ হয়ে যান। পরে হাসপাতালে চিকিৎসা চলাকালীন মৃত্য়ু হয় তার।

নাসিকের পুলিশ সুপার শাহজী উমাপ জানিয়েছেন, সুপারভাইসার , কর্মী সহ সব মিলিয়ে ১৪জন জখম হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মহারাষ্ট্রের মুখ্য়মন্ত্রী একনাথ শিন্ডে জানিয়েছেন, আহতদের সবরকম সহযোগিতা করা হচ্ছে। যারা আটকে পড়েছিলন তাদের উদ্ধার করা হচ্ছে। আমি ব্যক্তিগত উদ্ধারে নজরদারি করছি। দমকলের গাড়ি এসেছে। ১৪জনের মধ্যে ২জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

Read also  'ঠিক যেন সোনিয়ার দরবারি কুত্তা', খাড়গের মন্তব্যের পালটা আক্রমণ BJP বিধায়কের

 

Source link