Ear popping in winter: শীত পড়তেই বেড়ে যায় কানে ব্যথা আর চুলকানি, কেন হয় জানেন? কীভাবে মুক্তি পাবেন

শীতকাল মানেই সর্দিকাশির মরশুম। তবে এর সঙ্গে কানের সমস্যাতেও অনেকে এতে ভোগেন। শীত পড়তেই কানের ভিতর চুলকানির সমস্যা বাড়তে থাকে। হঠাৎ করেই নানা সময় এই সমস্যা বেশ অস্বস্তিতে ফেলে। বারবার কান খুঁচিয়েও চুলকানি কমানো যায় না। বরং কানের ব্যথা তাতে বেড়ে যায়।

কেন শীত পড়তেই এমন ব্যথা বেড়ে যায়?

পাতিল ইএনটি ক্লিনিক চিকিৎসক যোগেশ পাতিলের কথায়, কান ও নাকের সংযোগস্থলে থাকা ইউস্টেচিয়ান টিউবের কারণেই এমন ঘটনা ঘটে। তাঁর কথায়, এই নলের মতো অংশটি কান ও নাকের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে। নাক টানার সময় যখন বায়ু প্রবেশ করে তখন এই নলের মধ্যে দিয়ে কান পর্যন্ত বায়ুর চাপ পৌঁছে যায়। এই টিউবটি তখন খুলে গিয়ে চাপটিকে নিস্ক্রিয় করে দেয়। শীত পড়লে উষ্ণতা কমে যায়। তখন টিউবটি সবসময় না খোলে না। ফলে বায়ুর চাপ ঠিকমতো নিস্ক্রিয় হয় না। এর ফলেই চুলকানির মতো সমস্যা দেখা দেয়। একই ঘটনা প্লেনে চড়ার সময়ও ঘটে। তখনও বায়ুর চাপ সবসময় সামলে উঠতে পারে না ইউস্টেচিয়ান টিউব। চিকিৎসকের কথায়, হঠাৎ করে ঋতু পরিবর্তন হলেই এমন সমস্যা দেখা দিতে পারে। কিছু সহজ উপায়ে এর থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে।

কীভাবে মিলবে মুক্তি?

আমরা যখন খাবার চিবোই, গিলি ও নাক টানি তখন ইউস্টেচিয়ান টিউব খোলে ও বন্ধ হয়। তবে ইউস্টেচিয়ান টিউব ডিসফাংশনের সমস্যায় এটি ঠিকমতো খোলে না বা বন্ধ হয় না। ইউস্টেচিয়ান টিউব ডিসফাংশনের সমাধানের জন্য বেশ কয়েকটি ঘরোয়া টোটকার হদিশ দিলেন চিকিৎসক পাতিল।

  • তাঁর কথায়, রোজ নিয়ম করে হালকা গরম জল দিয়ে গার্গল করলে এই সমস্যা থেকে অনেকটাই মুক্তি পাওয়া যায়। তাপমাত্রা একটু বেড়ে যায় বলে টিউবটি ঠিকমতো কাজ করতে থাকে।
  • এছাড়া, রোজ গরম জলে স্নান করা যেতে পারে।
  • নাক বন্ধের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে অনেকেই নাসাল স্প্রে ব্যবহার করে থাকেন। এই স্প্রেও ইউস্টেচিয়ান টিউবের কার্যপ্রণালি ঠিক রাখতে সাহায্য করে।
  • নিয়মিত চুইং গাম চেবালেও টিউবটি ঠিকমতো কাজ করে।
  • চিকিৎসকের কথায়, কানে চুলকানি ও ব্যথা উপরের টোটকাগুলির সাহায্য নেওয়া যেতে পারে। তবে গুরুতর ব্যথা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া ভালো।
Read also  লজ্জা শুধু নারীর ভূষণ, পুরুষের ভূষণ তো নির্লজ্জ হওয়া!

 

 

Source link