রূপঙ্কর-কেকে বিতর্ক, অস্কারে চড় থেকে বিশ্বকাপে দীপিকা, ফিরে দেখা ২০২২-র বিনোদুনিয়া

Year Ender 2022, জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: বিদায় ২০২২। বিনোদনের জগতে এই বছর ছিল নানা ঘটনায় মোড়া। একদিকে যেমন মুছেছে দূরত্ব, তেমনই চোখের জলে বিদায় নিয়েছেন বহু তারকা। এক ঝলকে ফিরে দেখা সেই সব মুহূর্ত…

অস্কারে চড়

অস্কারের মঞ্চে সঞ্চালক ক্রিস রককে সপাটে চড় মেরে আলোচনার কেন্দ্রে উঠে এসেছিলেন হলিউড অভিনেতা উইল স্মিথ। ৯৪তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডের মঞ্চে উইল স্মিথের স্ত্রী জাডা পিঙ্কেটকে নিয়ে চটুল রসিকতা করেছিলেন ক্রিস রক। তার জেরেই ক্রিসকে চড় মেরেছিলেন উইল স্মিথ। অস্কার থেকে ১০ বছরের জন্য ব্যান করা হয়েছে এই হলিউড অভিনেতাকে।

সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের পদ্মশ্রী প্রত্যাখ্যান

জানুয়ারি মাসের শুরুতেই পদ্মশ্রী সম্মান প্রত্যাখ্যান করেন গীতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। জি ২৪ ঘণ্টার তরফে সেই সময় সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানিয়েছিলেন-‘আমার শরীরটা বেশ খারাপ। আমাকে পদ্মশ্রী নেওয়ার কথা বলা হয়েছিল, দিল্লি থেকে ফোন করা হয়েছে। আমি বলেছি না আমি পারবনা এই সম্মান নিতে যেতে। তাঁরা কারণ জানতে চায়, আমি বলেছি আমার মন চাইছে না। এটা অনেক বড় অপমান আমার জন্য। এই অপমানের সম্মান আমি গ্রহণ করতে পারব না। আমি কি কাজ করেছি ওঁরা তা জানে না। আমায় চেনেও না। সঙ্গীত জগতে সম্পর্কেও ওরা অবগত নয়। তাই কিছু না জেনেই কথা বলেছে, সেটাই খারাপ লাগা। একেবারে ঘোষণার শেষ পর্যায়ে এসে আমায় ফোন করছে, এতদিন পর মনে হল ওঁদের, আমি ঠিকমত দাঁড়াতে পারি না এখন, মঞ্চে গিয়ে কীভাবে গ্রহণ করব এই সম্মান? সারা ভারতে যত শিল্পী আছেন তাঁদের সঙ্গে আমি গান গেয়েছি। বড়ে গুলাম আলি খানের শিষ্যা আমি, তাঁর সঙ্গেও এক স্টেজে গান গাওয়ার সুযোগ পেয়েছি। সেটাই আমার জীবনের সেরা পুরস্কার। আমার দেশ আমায় যতটা ভালবেসেছে, মানুষ আমায় যতটা নিজের করে নিয়েছে, তারপর আমার আর কোনও আক্ষেপ নেই। এর আগে হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ও এই সম্মান প্রত্যাখ্যান করেছিলেন এজন্যই।’ এর কিছুদিন পরেই ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে পরলোকগমন করেন গীতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়।

রূপঙ্কর-কেকে বিতর্ক

হু ইজ কেকে? সোশ্যাল মিডিয়ায় এই একটি প্রশ্ন করেই মহাবিপাকে পড়েন রূপঙ্কর বাগচী। কেকে-র শো ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় উন্মাদনা দেখে প্রশ্ন তোলেন কেন এই উন্মাদনা বাংলার শিল্পীদের নিয়ে দেখায় না শ্রোতারা। রূপঙ্করের এই মন্তব্যেই বিতর্কের ঝড় ওঠে। এই ঘটনার একদিন পরেই আচমকা কলকাতাতে শেষ শো করে প্রয়াত হন কেকে। শিল্পীর মৃত্যু হয়ে ওঠে এই বিতর্কে ঘৃতাহুতি। সাংবাদিক সম্মেলন করে ক্ষমা চান রূপঙ্কর। কিন্তু তাতেও থামেনি সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলিং। এমনকী পুলিসে অভিযোগ জানিয়ে নিরাপত্তাও নিতে হয় সংগীতশিল্পীকে।

জনি ডেপ-অ্যাম্বার হার্ডের বিচ্ছেদ

২০২১ সালে ডেপের ‘মিনামাটা’ সিনেমা মুক্তি পেলেও যুক্তরাষ্ট্রে সেটির প্রদর্শনী হয়নি। হতাশ ডেপ বুঝে গিয়েছিলেন আমেরিকার মানুষ তাঁকে ‘প্রত্যাখান’ করেছে। এর কারণ স্ত্রী অ্যাম্বার হার্ডের সঙ্গে তার দাম্পত্য কলহ, যে জটিলতা অন্দর ছাড়িয়ে গড়ায় আদালত অবধি।কিন্তু চলতি বছরের জুনে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার একটি আদালতে সাবেক স্ত্রী অ্যাম্বার হার্ডের বিরুদ্ধে আনা মানহানি মামলায় জয়ী হওয়ার পর ‘সুদিন’ ফেরে ডেপের। যে মামলার শুনানি চলার সময় এবং রায়ের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভক্তদের সমর্থন দেখা গেছে ডেপের পক্ষেই।মামলায় জয় পাওয়ার পর থেকে জনি ডেপ অনেকগুলো কাজে হাত দিয়েছেন। ‘জান দ্যু বারি’ সিনেমায় ফরাসি সম্রাট পঞ্চদশ লুই হয়ে আসছেন জনি ডেপ। সিনেমায় শুটিংও শেষ হয়েছে।

Read also  সাজছে কলকাতা, কাল থেকে শুরু চলচ্চিত্র উৎসব, থাকবেন অমিতাভ, শাহরুখ

প্রসেনজিৎ-দেবশ্রীর মনোমালিন্যের ইতি!

কয়েক মাস আগে ‘কাছের মানুষ’ ছবির প্রচারের সময়ে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন, প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে বন্ধুত্বটা ঠিক করে নিতে চান। কারণ স্বামী স্ত্রী হওয়ার আগে থেকেই তাঁরা ভালো বন্ধু ছিলেন। দেবশ্রীর নাম না করে অভিনেতা বলেছিলেন, “আমার জীবনে তো অনেক সম্পর্কই ভেঙেছে, আবার গড়েছে। কিন্তু এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে মনে হয়, আমার প্রথম স্ত্রী যাঁর সঙ্গে অনেকদিন কথা নেই, দেখাও নেই, দেখা হয়নি বলেই কথা হয়নি। আমরা ছোটবেলার বন্ধু। তো নিশ্চয়ই আমি চাইব যে একবার দেখা করে, আমরা তো একদম ছোটবেলার বন্ধু, তো ওই বন্ধুত্বের জায়গাটায় যেন চলে আসি।” শোনা যাচ্ছে প্রসেনজিতের তরফ থেকে ছবির অফারও করা হয়েছে দেবশ্রীকে। তবে তা এখনও আলোচনাস্তরে।

অভিষেক-প্রসেনজিৎ তিক্ততা…

২৪ মার্চ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে আচমকা প্রয়াত হন বাংলার অন্যতম স্টার অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে টলিউডে। তাঁর মৃত্যুর পরেই শোকজ্ঞাপন করেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। কিন্তু কিছুদিন আগেই এই দুই সুপারস্টারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন অভিষেক। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দেন অভিষেকের স্ত্রী। এমন দুর্দিনের মাঝেই খবর রটে যায় যে, প্রয়াত অভিনেতার পরিবারের প্রয়োজন আর্থিক সাহায্যের, তাঁদের নাকি সাহায্য করেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এমন দুর্দিনের মাঝেই খবর রটে যায় যে, প্রয়াত অভিনেতার পরিবারের প্রয়োজন আর্থিক সাহায্যের। মুখ খুলতে বাধ্য হন অভিষেকের স্ত্রী। সংযুক্তা সপাটে জানিয়ে দেন যে, “না, আমাদের কেউ আর্থিক সাহায্য করেননি। এবং অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের পরিবারের কোনও আর্থিক অনুদানের প্রয়োজন নেই। সবটাই রটনা।”

নন্দন বিতর্ক

২০২২ সালে বারংবার শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছে নন্দন। অনীক দত্তের ‘অপরাজিত’ জায়গা পায়নি নন্দনে। তাঁর রাজনৈতিক মতাদর্শের কারণেই এই ঘটনাটি ঘটেছে বলে অভিযোগ জানান অনীক দত্ত। এর কিছুদিন পরেই মুক্তি পায় সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম। সেই ছবিও জায়গা পায়নি নন্দনে। কিন্তু সেই একইদিনে মুক্তিপ্রাপ্ত রাজ চক্রবর্তীর ‘হাবজি গাবজি’ জায়গা করে নেয় নন্দনে। সোশ্যাল মিডিয়াতেই ক্ষোভ জানান সৃজিত। রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায় ও রুদ্রনীল ঘোষের ছবি ‘আকাশ অংশত মেঘলা’ ঘিরেও তৈরি হয় একই বিতর্ক। রুদ্রনীল ঘোষ বিজেপির সদস্য হওয়ার কারণেই এই ছবি জায়গা পায়নি বলে অভিযোগ ছিল অভিনেতার। বছর শেষে মুক্তি পায় দেব ও মিঠুন অভিনীত ‘প্রজাপতি’। সেই ছবিও শো পায়নি নন্দনে। তা নিয়ে রাজনৈতিক তরজাও ওঠে চরমে। তবে সেই বিতর্কে ইতি টানেন দেব নিজেই।

সৃজিত-পরমব্রত বিতর্ক

সৃজিতের একাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। জি ২৪ ঘণ্টার বিশেষ টক শো লাইমলাইটে এসে পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় বলেন, “ওঁর আপাতত একবছর বিরতি নেওয়া উচিত। সবাই সবসময়ে ভালোটাই দিতে পারেন, এমনটা নয়। বছরে এখন অনেকগুলো করে ছবি বানাচ্ছে সৃজিত। যেন টিক বক্স পূরণ করছে। একটা বাণিজ্যিক, একটা ফেস্টিভ্যালের জন্য, আবার একটা আর্ট হাউস সিনেমা… এভাবেই টিক দিতে দিতে যাচ্ছে। মনে হচ্ছে, সিনেমা কম, প্রজেক্ট বেশি করছে। তাই বন্ধু হিসেবে বলতে চাই, ও একটু বিরতি নিয়ে বই পড়ে, সিনেমা দেখে আবারও একবছর পর ফিরে এসে যদি কোনও সিনেমা বানায়, তাহলে হয়তো পুরনো সৃজিতকে ফেরত পাব আমরা। যে মানুষটাকে বাংলা ইন্ডাস্ট্রির এখন খুব দরকার।”

Read also  এই প্রথম নয়! বারংবার পুলিসি হেনস্থার শিকার ‘বামমনস্ক’ জীতু কমল

স্বস্তিকা বনাম এসভিএফ

বছরটা বেশ ভালো কেটেছে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের। বাংলা ছবির পাশাপাশি এবছর একাধিক হিন্দি ওটিটিতে সাড়া জাগিয়েছেন স্বস্তিকা। ক্রিমিনাল জাস্টিস সিজন থ্রি থেকে শুরু করে কলা, স্বস্তিকার অভিনয় প্রশংসা কুড়িয়েছে সারা ভারতে। এমনকী বাংলা ছবিতেও নজর কেড়েছেন তিনি। এই বছর মুক্তি পায় স্বস্তিকা অভিনীত ছবি ‘শ্রীমতী’। একার কাঁধেই সেই ছবিকে সাফল্যে চূড়ায় পৌঁছে দিয়েছেন অভিনেত্রী। সুপারহিট ছিল ‘শ্রীমতী’। কিন্তু এই ছবির ডিস্ট্রিবিউশন নিয়ে এসভিএফের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন স্বস্তিকা।

বয়কট ট্রেন্ড

বলিউড জেরবার বয়কট ট্রেন্ডে। এই ট্রেন্ডের মুখে পড়েই বক্স অফিসে চূড়ান্ত ব্যর্থ হয় আমির খানের ছবি ‘লাল সিং চাড্ডা’। বলিউড যখন বয়কট ট্রেন্ডে উত্তাল। ঠিক তখনই তিনটি বাংলা ছবিকে বয়কটের ডাক দেয় নেটিজেনরা। রাজ চক্রবর্তীর ‘ধর্মযুদ্ধ’, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘লক্ষ্মীছেলে’ ও ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তের ‘বিসমিল্লাহ’-র বিরুদ্ধে নেটিজেনরা অভিযোগ তোলে যে, এই তিন ছবি ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে। এই প্রসঙ্গে ট্রোলারদের জবাবও দেন রাজ চক্রবর্তী।

কলকাতায় চঞ্চল ‘হাওয়া’

বাংলাদেশের বেশ অনেকে অভিনেতা অভিনেত্রীই ছিলেন খবরের শিরোনামে। তবে যাঁকে ঘিরে এই বাংলায় উন্মাদনা ওঠে তুঙ্গে, তিনি হলেন চঞ্চল চৌধুরী। তাঁর ওয়েব সিরিজ কারাগার সাড়া ফেলে দেয় ওটিটিতে। এই বছরের শেষে মুক্তি পায় কারাগার টু। এবছর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয় চঞ্চল চৌধুরী অভিনীত ‘হাওয়া’। যা দেখতে ভোরবেলা থেকে লাইন পড়ে নন্দনের বাইরে। সেই ছবি প্রদর্শিত হয় কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবেও। এবছর কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের অভিনেতা হিসাবে নিমন্ত্রণ পান তিনি। এই প্রথম, অবশেষে জটিলতা কাটিয়ে ভারতে মুক্তি পায় বাংলাদেশের ছবি ‘হাওয়া’।

আরও পড়ুন-Pori Moni-Taslima Nasrin: ‘পরীমণির জীবনটা অনেকটা আমার জীবনের মতো’, নায়িকার পাশে তসলিমা

বাংলাদেশের ওটিটি জয়

এবছর শুধু চঞ্চল চৌধুরীর ‘হাওয়া’ নয়, ওটিটিতে ঝড় তুলেছে বাংলাদেশের একাধিক ওয়েব সিরিজ। কারাগার, বোধ, কাইজার, সবরীনা, কারাগার টু, ঢাকা মেট্রো, মহানগর একাধিক ওয়েবসিরিজ জনপ্রিয়তা পেয়েছে এপার বাংলায়। এক কথায় এপার বাংলার ওটিটি কনটেন্টকে টেক্কা দিয়েছে বাংলাদেশের কনটেন্ট। বাংলাদেশের ওয়েব সিরিজ বাদেও দর্শকের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে বিরহী, বিরহী টু, গোরা, একেন বাবু এবার কলকাতায়, মন্দার, হস্টেল ডেজ, সম্পূর্ণা সহ বেশ কয়েকটি ওয়েব সিরিজ।

বিবাহ থেকে বিচ্ছেদ…

এই বছর সাত পাকে বাঁধা পড়েন একাধিক তারকা। সেই তালিকায় রয়েছেন বাংলাদেশের পরীমণি, বিদ্যা সিনহা মিম থেকে শুরু করে টলিউডের প্রান্তিক-অঙ্কিতা, চিত্রাঙ্গদা-সম্বিত, বলিউডের বাঙালি অভিনেত্রী মৌনী রায়। তবে এই বছরেই বিচ্ছেদ ঘোষণা করেন অনুপম রায় ও পিয়া চক্রবর্তী, দেবলীনা দত্ত ও তথাগত চট্টোপাধ্যায়, দুর্নিবার সাহা ও তাঁর স্ত্রী, ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত ও বরখা বিস্ত। চারটি সম্পর্কেই উঠে আসে তৃতীয় ব্যক্তির কথা। বছর শেষে বিচ্ছেদের ঘোষণা করেন পরীমণিও। তবে এই বছরে যে বিয়ে সবচেয়ে বেশি নজর কাড়ে তা হল আলিয়া ভাট ও রণবীর কাপুরের বিয়ে। বাড়িতেই সাত পাকে বাঁধা পড়েন তাঁরা। এই বছরই প্রথম সন্তানের জন্ম দেন আলিয়া। মেয়ের নামকরণ করেছেন রাহা। এছাড়াও এই বছর মা হয়েছেন সোনম কাপুর ও বিপাশা বসু। সোনম ছেলের নাম রাখেন বায়ু ও বিপাসা মেয়ের নাম রাখেন দেবী। এবছর সাত পাকে বাঁধা পড়েন রাজকুমার রাও ও পত্রলেখা। বিয়ে করেন বিক্রান্ত মাসে। 

Read also  এবার ছেলের কাছেও ঠাট্টার পাত্রী মালাইকা! প্রকাশ্যে মাকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য আরহানের

অ্যাকশন রোমান্স অতীত, কনটেন্টই কিং

এবছরের বাংলা ছবির বক্স অফিস জানান দিচ্ছে যে, অ্যাকশন রোমান্সে ভরপুর বানিজ্যিক ছবি থেকে মুখ ফিরিয়েছে দর্শক। এই বছর সবচেয়ে বেশি ব্যবসা করেছে ‘কর্ণসুবর্ণের গুপ্তধন’। এছাড়াও সেইসব ছবি দর্শকের প্রশংসা পেয়েছে, তা হল- বল্লভপুরের রূপকথা, প্রজাপতি, কাছের মানুষ, অপরাজিত, দোস্তজী, শ্রীমতী, বৌদি ক্যান্টিন, কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন, বাবা বেবি ও, তীরন্দাজ শবর, অভিযান, বেলাশুরু, হত্যাপুরী, হামি২, হাবজি গাবজি, প্রসেনজিৎ ওয়েডস ঋতুপর্ণা। প্রায় একই চিত্র বলিউডে। মুখ থুবড়ে পড়েছে একের পর এক তারকার ছবি। এবছর ব্লকবাস্টার তকমা পেয়েছে মাত্র ৬টি ছবি, ব্যর্থ ৩৯টি ছবি। ব্লকবাস্টারের তালিকায় দৃশ্যম টু, ভুল ভুলাইয়া ২, দ্য কাশ্মীর ফাইলস, কান্তারা, কেজিএফ ২, আরআরআর।  সুপারহিট হয়েছে ব্রহ্মাস্ত্র ও গাঙ্গুবাই কাথিয়াওয়াড়ি। 

বলিউডে দক্ষিণী ছবির জয়জয়কার

এবছর বলিউডে ব্লকবাস্টার তকমা পেয়েছে মাত্র ৬টি ছবি, বাকি সব ফ্লপ। সেই ছয়ের মধ্যে তিনটি ছবিই দক্ষিণের।  কান্তারা, কেজিএফ ২, আরআরআর, পোন্নিয়ন সেলভান ১ যখন সুপারহিট তখন বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছে অক্ষয় কুমার, আমির খান, অজয় দেবগণের ছবি। এমনকী অস্কারের শর্টলিস্টেও জায়গা পেয়েছে আরআরআর ছবির গান নাটু নাটু। 

বিশ্বকাপে দীপিকা…

বিশ্বকাপের মঞ্চে এবছর ঝড় তুলেছিলেন নোরা ফতেহি। তবে তিনি একা নন, এবার বিশ্বমঞ্চে ভারতের নাম উজ্জ্বল করেন দীপিকা পাড়ুকোন। তিনিই প্রথম অভিনেত্রী যিনি বিশ্বকাপের ট্রফি উন্মোচন করেন। 

বিদায়…

এবছর বিনোদন জগতের সবচেয়ে বড় ঘটনা হল লতা মঙ্গেশকরের চলে যাওয়া। ফেব্রুয়ারি মাসের ৬ তারিখে মৃত্যু হয় মেলোডি ক্যুইনের। বয়স হয়েছিল ৯২ বছর। এই বছরই চলে যান সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। তাঁর মৃত্যুর পরের দিনই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাপ্পি লাহিড়ি। গায়ক, সঙ্গীত পরিচালক বাপ্পি লাহিড়ী সৃষ্টি করেছেন বলিউডের একের পর এক হিট গান। হিন্দি ছাড়াও বাংলা, তেলুগু, কন্নড় ছবিতে কাজ করেছেন বাপ্পি লাহিড়ী। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি ৬৯ বছর বয়সে প্রয়াত হন বিশিষ্ট এই সঙ্গীতশিল্পী। স্লিপ অ্যাপনিয়ার মতো অসুখে ভুগছিলেন বিশিষ্ট এই শিল্পী। এছাড়াও এই বছর চোখের জলে বিদায় নিয়েছেন অভিষেক চট্টোপাধ্যায়, ঐন্দ্রিলা শর্মা। দুবার ক্যানসার জয় করার পর, সেরিব্রাল হয় ঐন্দ্রিলার। দীর্ঘ ২০ দিনের যুদ্ধ শেষে প্রয়াত হন ঐন্দ্রিলা। আচমকা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে এই বছরই প্রয়াত হন কন্নড় সুপারস্টার পুনিত রাজকুমার।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

Source link