দলীয় অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় চুঁচুড়ার তৃণমূল বিধায়ক বিজেপিকে নিশানা করায়, পাল্টা বিজেপিও চ্যালেঞ্জ করেছে, Chinsura’s Trinamool Congress MLA’s targets BJP on party office vandalism, Saffron camp countered

বিরোধীদের লোকজন নেই

বিধায়ক বলেন, যাদের পায়ের তলার মাটি নেই সেই সিপিআইএমকে মানুষ বাংলা থেকে বঙ্গোপসাগরে ফেলে দিয়েছে। আর এই উচ্চিংড়ের দল, সাম্প্রদায়িক দল এরা টুক টুক করে বেঁচে আছে। তিনি বলেন, দলের কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন বিরোধীদের রাজনৈতিক কাজে যেন কোনও হস্তক্ষেপ করা না হয়। তৃণমূল বিধায়ক বলেন, বিরোধীদের কাজের সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। তিনি কটাক্ষ করে বলেন, ওদের লোকজন নেই। তাই অশান্তি করার চেষ্টা করছে।

বিরোধীদের হুঁশিয়ারি

বিরোধীদের হুঁশিয়ারি

পাশাপাশি বিধায়ক বিরোধীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে চুঁচুড়ার বিধায়ক বলেন, কেউ কেউ তৃণমূলকে দুর্বল ভাবছে। তৃণমূলের জন্মদিনে দলের পার্টি অফিস ভাঙচুর করছে। হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, ইচ্ছে করলে তিনি নির্দেশ দিলে, চুঁচুড়া বিধানসভা এলাকায় বিরোধী দলের যত পার্টি অফিস আছে, পনেরো মিনিটে বন্ধ হয়ে যাবে।

পাল্টা বিজেপির চ্যালেঞ্চ

পাল্টা বিজেপির চ্যালেঞ্চ

বিধায়কের কথার পাল্টা জবাব দিয়ে হুগলি জেলা সাংগঠনিক বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সুরেশ সাউ বলেছেন, বিধায়ককে পনেরো মিনিট নয়, ২৪ ঘন্টা সময় দিচ্ছেন তিনি। একটা পার্টি অফিস বন্ধ করে দেখান উনি।

তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বে ভাঙচুর

তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বে ভাঙচুর

পাশাপাশি তৃণমূলের পার্টি অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় সুরেশ সাউ বলেন, চুঁচুড়া বিধানসভা উত্তপ্ত হয় কেবলমাত্র এই বিধায়ক এবং তার কিছু লোকজনের জন্য। বালিকাটায় যে ঘটনা ঘটেছে তা কেবল তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফলেই হয়েছে। দায় এড়াতে বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে। সামনে পঞ্চায়েত ভোট কে টিকিট পাবে কে পাবে না সে নিয়েই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। এদিকে পার্টি অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় ব্যাণ্ডেল ফাঁড়ির পুলিশ সূরজ সামি নামে একজনকে আটকে করেছে।

Source link

Read also  বড়দিনে চালু হচ্ছে নতুন একজোড়া বনগাঁ লোকাল, সেভ করে নিন টাইম টেবিল